দুই মাস পর করোনায় মৃত্যুশূন্য বরিশাল বিভাগ

এইচ এম সোহেলঃ  দুই মাস পর বরিশাল বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যাননি। তবে উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুইজন মারা গেছেন।

সোমবার (৩০ আগস্ট) সকালে বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে পাঠানো করোনা সংক্রান্ত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. সাইফুল ইসলাম বলেন, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে উপসর্গ নিয়ে দুইজন মারা গেছেন। এই ২৪ ঘণ্টায় করোনা পজিটিভ কোনো রোগীর মৃত্যু হয়নি। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বর্তমানে ৯৯ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এরমধ্যে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৫১জন।

তিনি আরও বলেন, মেডিকেল কলেজের আরটিপিসিআর ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় ১৮৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২৭ জন পজিটিভ শনাক্ত হন। শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ২৮ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বরিশালে বিভাগীয় পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস বলেন, বিভাগের ৬ জেলায় ৮৬৮ নমুনা পরীক্ষায় ১১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ০২ শতাংশ। এর মধ্যে ভোলায় ২৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪৫ জন, বরিশালে ২৪০ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৯ জন, পটুয়াখালীতে ১৮৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১৮ জন, পিরোজপুরে ৫৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫ জন, বরগুনায় ১০৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় চারজন ও ঝালকাঠীতে ৫৩ জনের নমুনা পরীক্ষায় দুইজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

এর আগে ২০২০ সালের ৯ এপ্রিল বরিশাল বিভাগে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হয়। বিভাগে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়ে ৬৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

এইচ এম সোহেল॥ আবারো বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কে পাথরবোঝাই ট্রাকের ভারে ভেঙ্গে পড়েছে মাধবপাশার বেইলি ব্রিজ। পাথর বোঝাই ট্রাকটি ব্রিজ পারাপররের সময় ব্রিজের মাঝামাঝি আসার পরে ব্রিজটি ভেঙ্গে ট্রাকটি খালের ভিতরে পড়ে যায়। এতে ভোগান্তিতে পরে দুই পারের হাজারো গাড়ি এবং যাত্রী। ঘটনাটি ঘটে বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ভোর ৭ টার দিকে। বাবুগঞ্জ উপজেলার মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদসংলগ্ন বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কে এই বেইল ব্রিজটি খালে ভেঙ্গে পড়ে। পাথরবোঝাই একটি ট্রাকটি পিরোজপুর থেকে বানারীপাড়া আসার পথে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। এর আগে ২০২০ সালেও পাথরবোঝাই ট্রাকের ভারে ভেঙ্গে পড়েছিলো বেইলি ব্রিজটি। সড়ক ও জনপথ বিভাগ ইউনিয়ন পরিষদসংলগ্ন খালের ওপর ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজের সংস্কারের কাজ শুরু করেছিলো। ওই সময় সড়কের পাশে বিকল্প যোগাযোগব্যবস্থা হিসেবে বেইলি ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছিল। বরিশাল মেট্রোপলিটনের বিমান বন্দর থানার এ এস আই সুমন দেশ জনপদকে জানান, আমি সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে আশি। বেইলি ব্রিজটি ভেঙে পড়ায় বরিশালের সঙ্গে নেসারাবাদ ও বানারীপাড়ার সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে । এতে স্থানীয় জনসাধারণ ও যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ সৃস্টি হয়েছ। ট্রাক উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে। মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এই ব্রিজটি বছর দেড়েক আগে আরও একবার ভেঙ্গে পড়েছিল। দুর্ঘটনায় স্থানীয়রা ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দ্রুত ব্রিজটি সচল করার দাবি জানান তিনি।