বরিশাল বিভাগে করোনায় মৃত্যুহীন দ্বিতীয় দিন

২৪ ঘণ্টায় বিভাগে ৪৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫৭ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১২ দশমিক শূন্য ৫৬। নতুন ৫৭ জনের মধ্যে সর্বোচ্চ ২৫ জন ভোলার। এ ছাড়া বরিশালের ১৬, পটুয়াখালীতে ১৪, পিরোজপুর ও ঝালকাঠিতে ১ জন করে।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা যায়, বিভাগে গত মে মাসের মাঝামাঝি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়। জুলাইয়ে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেড়েছিল। তবে আগস্টের প্রথম সপ্তাহের পর তা ধীরে ধীরে কমতে থাকে। বিভাগে এ পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত মোট ৬৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিভাগে মৃত্যুহার এখন ১ দশমিক ৫০। তবে বরগুনায় তা ২ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

অধিদপ্তরের তথ্য পর্যালোচনা করে আরও দেখা গেছে, চলতি বছরের মে থেকে আগস্ট—এই চার মাসে করোনায় ৪১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে মে মাসে মারা গেছেন ২৪ জন। জুনে ৪৩, জুলাইয়ে ১৬২ আর আগস্টে মৃত্যু হয়েছে ১৮৫ জনের।

মৃত্যুর পাশাপাশি সংক্রমণের গতি গত তিন মাসে বেশি ছিল। জুনে শনাক্ত হয় ২ হাজার ৪৮ জন। জুলাইয়ে ৫ হাজার ২৫৮ আর আগস্টে ৯ হাজার ৯২৬ জন। গত বছরের এপ্রিল থেকে এ পর্যন্ত বরিশাল বিভাগে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪৩ হাজার ৭৫৫ জনের।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শ্যামল কৃষ্ণ মণ্ডল বলেন, গত ১০ দিন বিভাগে শনাক্তের হার ২০ শতাংশের নিচে আছে। এটা সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ সরকারের নানা উদ্যোগের ফল। তবে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এসেছে, এমনটি বলা যাচ্ছে না। পরিস্থিতির উন্নতি ধরে রাখতে হলে টিকা নেওয়ার ব্যাপারে মানুষের আগ্রহ বাড়ানো ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ

এইচ এম সোহেল॥ আবারো বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কে পাথরবোঝাই ট্রাকের ভারে ভেঙ্গে পড়েছে মাধবপাশার বেইলি ব্রিজ। পাথর বোঝাই ট্রাকটি ব্রিজ পারাপররের সময় ব্রিজের মাঝামাঝি আসার পরে ব্রিজটি ভেঙ্গে ট্রাকটি খালের ভিতরে পড়ে যায়। এতে ভোগান্তিতে পরে দুই পারের হাজারো গাড়ি এবং যাত্রী। ঘটনাটি ঘটে বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ভোর ৭ টার দিকে। বাবুগঞ্জ উপজেলার মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদসংলগ্ন বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কে এই বেইল ব্রিজটি খালে ভেঙ্গে পড়ে। পাথরবোঝাই একটি ট্রাকটি পিরোজপুর থেকে বানারীপাড়া আসার পথে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। এর আগে ২০২০ সালেও পাথরবোঝাই ট্রাকের ভারে ভেঙ্গে পড়েছিলো বেইলি ব্রিজটি। সড়ক ও জনপথ বিভাগ ইউনিয়ন পরিষদসংলগ্ন খালের ওপর ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজের সংস্কারের কাজ শুরু করেছিলো। ওই সময় সড়কের পাশে বিকল্প যোগাযোগব্যবস্থা হিসেবে বেইলি ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছিল। বরিশাল মেট্রোপলিটনের বিমান বন্দর থানার এ এস আই সুমন দেশ জনপদকে জানান, আমি সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে আশি। বেইলি ব্রিজটি ভেঙে পড়ায় বরিশালের সঙ্গে নেসারাবাদ ও বানারীপাড়ার সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে । এতে স্থানীয় জনসাধারণ ও যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ সৃস্টি হয়েছ। ট্রাক উদ্ধার করার চেষ্টা চলছে। মাধবপাশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এই ব্রিজটি বছর দেড়েক আগে আরও একবার ভেঙ্গে পড়েছিল। দুর্ঘটনায় স্থানীয়রা ভীষণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। দ্রুত ব্রিজটি সচল করার দাবি জানান তিনি।