সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপত্তা জোরদারে গুরত্বারোপ

টেকনাফে বিজিবি-বিজিপি সীমান্ত সম্মেলন

  বিশেষ প্রতিনিধি    25-05-2023    96
সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপত্তা জোরদারে গুরত্বারোপ

সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপত্তা জোরদার, নিবিড় যোগাযোগের মাধ্যমে পারস্পরিক আস্থা নির্ভরতা, সহযোগিতার ক্ষেত্র দৃঢ় অঙ্গীকার, অবৈধ অনুপ্রবেশ প্রতিরোধ, আন্ত সীমান্ত সন্ত্রাস দমন, দুষ্কৃতিকারী ও মাদকদ্রব্য চোরাচালান প্রতিহত করণ, ইয়াবা ও আইস পাচার নির্মূল, সীমান্তে গুলিবর্ষণ, মাইন স্থাপন, অসর্তকতা কিংবা ভুলবশত বা ঝড়ের কবলে পড়ে আন্তর্জাতিক সীমানা লাইন অতিক্রম করে মিয়ানমারে অভ্যন্তরে প্রবেশ করলে বাংলাদেশি নাগরিকদের বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত চুক্তি ১৯৮০ অনুযায়ী দ্রুত ফেরত পাঠানো বিষয়টি ত্বরান্বিত ও সহজিকরণ, উভয় সীমান্ত বাহিনীর মধ্যে তড়িৎ যোগাযোগের স্থাপনের মাধ্যমে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণসহ বিভিন্ন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) এর মধ্যে রিজিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে দুইদিন ব্যাপী সীমান্ত সম্মেলন শেষে বৃহস্পতিবার (২৫ মে) টেকনাফ সেন্ট্রাল রিসোর্ট সম্মেলন কক্ষে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজম-উস-সাকিব সাংবাদিকদের প্রেসব্রিফিং কালে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বিজিবি-বিজিপি’র মধ্যে অত্যন্ত আন্তরিক ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে ফলপ্রসূ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভবিষ্যতে নিয়মিত বিরতিতে এ সভা আয়োজন করা হবে। এছাড়া উভয় দেশের সীমান্ত সম্পর্কিত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদী নিয়ে বিশদ আলোকপাত করা হয়েছে।

এর আগে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) এর মধ্যে রিজিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে দুইদিন ব্যাপী সীমান্ত সম্মেলন গতকাল বুধবার (২৪ মে) সকালে টেকনাফ মেরিন ড্রাইভস্থ হোটেল সেনট্রাল রিসোর্টের সম্মেলন কক্ষে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয়। সম্মেলনে অংশগ্রহণ করতে মিয়ানমার প্রতিনিধিদল নাফ নদী হয়ে নৌপথে শাহপরীরদ্বীপ জেটিঘাটে পৌঁছান।

সেখান থেকে মিয়ানমার বর্ডার গার্ড পুলিশের নম্বর (১) এর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল থেট উইন”র নেতৃত্বে ১৬ সদস্যের প্রতিনিধিদল সেন্ট্রাল রিসোর্টের সম্মেলনে অংশ নেন। অপরদিকে, বাংলাদেশের পক্ষে কক্সবাজার রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজম-উস-সাকিবের নেতৃত্বে ১৫ প্রতিনিধিদল সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন।

সম্মেলনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল ছাড়াও টেকনাফ ২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মহিউদ্দীন আহমেদ, বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সারাদেশ-এর আরও খবর