তারেক রহমান ও জোবাইদা’র মামলার রায়কে প্রত্যাখান ঢাবির সাদা দল ও ছাত্রদলের

  বিশেষ প্রতিনিধি    02-08-2023    113
তারেক রহমান ও জোবাইদা’র মামলার রায়কে প্রত্যাখান ঢাবির সাদা দল ও ছাত্রদলের

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তাঁর সহধর্মিণী ডা. জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে মিথ্যা ও সাজানো দুর্নীতির মামলায় উদ্দেশ্যপ্রণোদিত রায়ের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এই রায় কে প্রত্যাখ্যান করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল। একইসঙ্গে তারেক রহমান এবং তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে সাজানো মামলায় সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

আজ ২ আগস্ট (২০২৩) বুধবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক লুৎফর রহমান যুগ্ন আহবায়ক অধ্যাপক সিদ্দিকুর রহমান খান এবং যুগ্ন আহবায়ক অধ্যাপক আবদুস সালাম স্বাক্ষরিত এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন , “২০০৭ সালে ১/১১ এর জরুরি সরকারের সময় বিএনপিকে ধ্বংস এবং দেশকে বিরাজনীতিকরণের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তাঁর সহধর্মিণী বিশিষ্ট কার্ডিওলোজিস্ট ডা. জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে দুদক তথাকথিত দুর্নীতির মামলা দায়ের করে।

দীর্ঘ ১৬ বছর পর হঠাৎ তড়িগড়ি করে এ মামলার শুনানির (১৬ কার্য দিবসে ৪২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ) পর রায় প্রদান রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং বর্তমান অগণতান্ত্রিক ফ্যাসিস্ট সরকারের ইশারাতেই এ রায় হয়েছে। দেশবাসী সকলেই জানে যে, এ সরকার বাংলাদেশের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল বিএনপিকে রাজনৈতিক কৌশলে মোকাবিলার পরিবর্তে শুরু থেকেই আইন-আদলতকে ব্যবহার করে আসছে। তারেক রহমান এবং ডা. জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে দেয়া আজকের রায়টি সেই পুরনো কৌশলেরই ধারাবাহিকতা। বস্তুত জনাব তারেক রহমানকে রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন এবং এবং ডা. জুবাইদা রহমানের মতো একজন বরেণ্য চিকিৎসকের সম্মান ক্ষুন্ন করা অশুভ উদ্দেশ্য নিয়েই এ কাজটি করা হয়েছে।

তারা আরো বলেন ,”আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বর্তমান অগণতান্ত্রিক ফ্যাসিস্ট সরকারের পদত্যাগ এবং গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও মানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিএনপি’র নেতৃত্বে চলমান গণআন্দোলনে সরকার ভীত ও অস্বস্তিতে পড়েছে। দেশে ফিরে এসে ডা. জুবাইদা রহমান চলমান আন্দোলনে যোগ দিতে পারেন এবং তা হলে আন্দোলন নতুন গতিবেগ লাভ করবে। ফলে ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের মতো প্রহসনের নির্বাচন আয়োজন করে ক্ষমতায় থাকার স্বপ্ন পূরণ হবে না- এ আশঙ্কায় সরকার ভীত হয়ে পড়েছে। তদুপরি আমেরিকার ভিসা নীতি এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন আয়োজনের জন্য অব্যাহত চাপ বৃদ্ধিতে দিশেহারা হয়ে সরকার নানা অপকৌশলের আশ্রয় নিচ্ছে।

তারেক রহমান ও ডা. জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে ঘোষিত মামলার আজকের রায়টি এ অপকৌশলেরই অংশ। চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনের দিক নির্দেশনা দানকারী তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় নেতা তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে দেশের বাইরে এবং রাজনীতি থেকে সরিয়ে রেখে সরকার নিজেদের ফ্যাসিস্ট শাসন অব্যাহত রাখতে চায়। এ অশুভ পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি’র চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকেও প্রহসনের বিচারের মাধ্যমে সাজা দিয়ে রাজনীতি ও নির্বাচন থেকে দূরে সরিয়ে রেখেছে। এবারের রায়ের মাধ্যমে ডা. জুবাইদা রাহমানকেও নির্বাচন অযোগ্য করার অপকৌশল গ্রহণ করা হলো।

শেষ পর্যন্ত সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে বিজয় প্রত্যাশী সাদা দলের শিক্ষকরা জানান,” এসব অপকৌশলের মাধ্যমে সাময়িকভাবে হয়তো সরকার সুবিধা নিতে পারবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সত্য ও ন্যায়েরই বিজয় হবে। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া এবং জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে যে অন্যায়-অবিচার করা হচ্ছে এর পরিণাম সংশ্লিষ্টদের একদিন ভোগ করতে হবে। এদেশের মানুষ এখন সচেতন।তারা প্রকৃত সত্য উপলব্ধি করতে সক্ষম। ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পেলে তারা এর সমুচিত জবাব দিবে বলে আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস। দেশ ও জাতির বৃহত্তর কল্যাণ ও স্বার্থ বিবেচনা করে জিয়া পরিবারকে রাজনীতিতে থেকে বিযুক্ত করার সকল অপকৌশল ও অপচেষ্টা থেকে বিরত থাকার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।

ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল : বিএনপি’র ভাবপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী জুবাইদা রহমানকে সরকারের ইশারায় দুর্নীতি দমন কমিশন কর্তৃক সাজানো, মিথ্যা ও বানোয়াট মামলায় ফরমায়েশী রায়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।আজ বিকেল পৌঁনে তিনটায় শাহবাগ মোড় থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সভাপতি খোরশেদ আলম সোহেল এবং সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন গেটে গিয়ে শেষ হয়।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা এবং বিভিন্ন হল শাখার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে সাজাকে রায় কে প্রত্যাখ্যান করে আগামী দিনে তারেক রহমানের নেতৃত্বে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে রাজপথে ঝাঁপিয়ে পড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

সারাদেশ-এর আরও খবর