ইরানের চমৎকার ইসলামি ঐতিহ্যসমৃদ্ধ শহর ইসফাহান এবার ইসরাইলের প্রধান লক্ষ্যবস্তু ছিল। যদিও ইসরাইল এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করেনি যে শুক্রবার ভোরে ইরানে যে হামলা হয়েছে সেটি তারা করেছে। অন্যদিকে ইরানের সামরিক ও রাজনৈতিক নেতারা বিষয়টিকে গুরুত্বহীন, এমনকি হাস্যরস পর্যন্ত করেছেন যে আদৌ কিছু হয়েছে কি-না তা নিয়ে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটি ছিল দুটি বা তিনটি কোয়াডকপ্টারের ফ্লাইট, যা আমাদের বাচ্চারা ইরানে যে খেলনা ব্যবহার করে তার মতো।

আবদুল্লাহিয়ান জানান, যতক্ষণ না ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে ইসরাইলি শাসকের পক্ষ থেকে কোনো নতুন দুঃসাহসিক কাজ না হয়, ততক্ষণ তাদের কোনো প্রতিক্রিয়া হবে না। কিন্তু ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে ইসরাইল আবার কোনো পদক্ষেপ নিলে তেহরান তাৎক্ষণিকভাবে সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে পরবর্তী হামলা চালাবে।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোর ৪টার দিকে ইরানের ইসফাহান শহরের কাছে হামলা চালায় ইসরাইল। এ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইসরাইলের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক প্রতিশোধ নেওয়ার কোনো পরিকল্পনা তেহরানের নেই। তবে তাদের পরমাণবিক স্থাপনা ক্ষতির মুখে পড়লে তার চরম মূল্য দিতে হবে তেল আবিবকে।

এর আগে গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার দামেস্কে ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালায় ইসরাইল। সেই হামলায় ইরানের কয়েকজন শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা নিহত হন। ওই হামলার জবাবে গত ১৩ এপ্রিল শনিবার রাতে ইসরাইলকে লক্ষ্য করে তিন শতাধিক ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড কোর (আইআরজিসি)। এ হামলার প্রতিশোধ নিতে ইরানে পাল্টা হামলার হুমকি দিয়েছিল ইসরাইল। পরে এর কড়া জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ার দিয়েছিল ইসরায়েল প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্র ও বেশ কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ ইসরায়েলকে পাল্টা হামলা না চালানোর জন্য আহ্বান জানালেও ইসরায়েল এই আহ্বান উপেক্ষা করে স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার ভোরে ইরানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাল।">
ইরানের চমৎকার ইসলামি ঐতিহ্যসমৃদ্ধ শহর ইসফাহান এবার ইসরাইলের প্রধান লক্ষ্যবস্তু ছিল। যদিও ইসরাইল এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করেনি যে শুক্রবার ভোরে ইরানে যে হামলা হয়েছে সেটি তারা করেছে। অন্যদিকে ইরানের সামরিক ও রাজনৈতিক নেতারা বিষয়টিকে গুরুত্বহীন, এমনকি হাস্যরস পর্যন্ত করেছেন যে আদৌ কিছু হয়েছে কি-না তা নিয়ে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটি ছিল দুটি বা তিনটি কোয়াডকপ্টারের ফ্লাইট, যা আমাদের বাচ্চারা ইরানে যে খেলনা ব্যবহার করে তার মতো।

আবদুল্লাহিয়ান জানান, যতক্ষণ না ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে ইসরাইলি শাসকের পক্ষ থেকে কোনো নতুন দুঃসাহসিক কাজ না হয়, ততক্ষণ তাদের কোনো প্রতিক্রিয়া হবে না। কিন্তু ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে ইসরাইল আবার কোনো পদক্ষেপ নিলে তেহরান তাৎক্ষণিকভাবে সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে পরবর্তী হামলা চালাবে।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোর ৪টার দিকে ইরানের ইসফাহান শহরের কাছে হামলা চালায় ইসরাইল। এ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইসরাইলের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক প্রতিশোধ নেওয়ার কোনো পরিকল্পনা তেহরানের নেই। তবে তাদের পরমাণবিক স্থাপনা ক্ষতির মুখে পড়লে তার চরম মূল্য দিতে হবে তেল আবিবকে।

এর আগে গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার দামেস্কে ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালায় ইসরাইল। সেই হামলায় ইরানের কয়েকজন শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা নিহত হন। ওই হামলার জবাবে গত ১৩ এপ্রিল শনিবার রাতে ইসরাইলকে লক্ষ্য করে তিন শতাধিক ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড কোর (আইআরজিসি)। এ হামলার প্রতিশোধ নিতে ইরানে পাল্টা হামলার হুমকি দিয়েছিল ইসরাইল। পরে এর কড়া জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ার দিয়েছিল ইসরায়েল প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্র ও বেশ কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ ইসরায়েলকে পাল্টা হামলা না চালানোর জন্য আহ্বান জানালেও ইসরায়েল এই আহ্বান উপেক্ষা করে স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার ভোরে ইরানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাল।">

ইসরাইলি অস্ত্র আমাদের বাচ্চাদের খেলনা: ইরান

  প্রকাশক ও সম্পাদক     21-04-2024    133
ইসরাইলি অস্ত্র আমাদের বাচ্চাদের খেলনা: ইরান

তেহরান-তেল আবিব চলমান উত্তেজনার মধ্যেই এবার ইসরাইলকে টিপ্পন্নী কেটে মন্তব্য করলেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেন আমির আবদুল্লাহিয়ান।

ইরানের ভূখণ্ডে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। পশ্চিম এশিয়ার এই দেশটির ইসফাহান শহরে বিস্ফোরণের শব্দও শোনা গেছে। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন দেশটির ইসফাহান শহরে বিস্ফোরণের খবর জানিয়েছে। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসফাহানের ওপর তিনটি ড্রোন ভূপাতিত করা হয়েছে। ইসফাহানের আকাশে তিনটি ড্রোন দেখা যাওয়ার পর বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা "আকাশেই ড্রোনগুলোকে ধ্বংস করেছে"। তবে তেহরান-তেল আবিব চলমান উত্তেজনার মধ্যেই এবার ইসরাইলকে টিপ্পন্নী কেটে তেল আবিবের পাঠানো অস্ত্রকে ইরানি বাচ্চাদের খেলনা বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেন আমির আবদুল্লাহিয়ান। শনিবার এনবিসি নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এই মন্তব্য করেন। এদিকে আবদুল্লাহিয়ানের এমন মন্তব্যের পর এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি ইসরাইল।

ইরানের চমৎকার ইসলামি ঐতিহ্যসমৃদ্ধ শহর ইসফাহান এবার ইসরাইলের প্রধান লক্ষ্যবস্তু ছিল। যদিও ইসরাইল এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করেনি যে শুক্রবার ভোরে ইরানে যে হামলা হয়েছে সেটি তারা করেছে। অন্যদিকে ইরানের সামরিক ও রাজনৈতিক নেতারা বিষয়টিকে গুরুত্বহীন, এমনকি হাস্যরস পর্যন্ত করেছেন যে আদৌ কিছু হয়েছে কি-না তা নিয়ে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটি ছিল দুটি বা তিনটি কোয়াডকপ্টারের ফ্লাইট, যা আমাদের বাচ্চারা ইরানে যে খেলনা ব্যবহার করে তার মতো।

আবদুল্লাহিয়ান জানান, যতক্ষণ না ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে ইসরাইলি শাসকের পক্ষ থেকে কোনো নতুন দুঃসাহসিক কাজ না হয়, ততক্ষণ তাদের কোনো প্রতিক্রিয়া হবে না। কিন্তু ইরানের স্বার্থের বিরুদ্ধে ইসরাইল আবার কোনো পদক্ষেপ নিলে তেহরান তাৎক্ষণিকভাবে সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে পরবর্তী হামলা চালাবে।

গত শুক্রবার স্থানীয় সময় ভোর ৪টার দিকে ইরানের ইসফাহান শহরের কাছে হামলা চালায় ইসরাইল। এ ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইসরাইলের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক প্রতিশোধ নেওয়ার কোনো পরিকল্পনা তেহরানের নেই। তবে তাদের পরমাণবিক স্থাপনা ক্ষতির মুখে পড়লে তার চরম মূল্য দিতে হবে তেল আবিবকে।

এর আগে গত ১ এপ্রিল সিরিয়ার দামেস্কে ইরানি কনস্যুলেটে হামলা চালায় ইসরাইল। সেই হামলায় ইরানের কয়েকজন শীর্ষ সেনা কর্মকর্তা নিহত হন। ওই হামলার জবাবে গত ১৩ এপ্রিল শনিবার রাতে ইসরাইলকে লক্ষ্য করে তিন শতাধিক ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড কোর (আইআরজিসি)। এ হামলার প্রতিশোধ নিতে ইরানে পাল্টা হামলার হুমকি দিয়েছিল ইসরাইল। পরে এর কড়া জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ার দিয়েছিল ইসরায়েল প্রশাসন। যুক্তরাষ্ট্র ও বেশ কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ ইসরায়েলকে পাল্টা হামলা না চালানোর জন্য আহ্বান জানালেও ইসরায়েল এই আহ্বান উপেক্ষা করে স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার ভোরে ইরানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাল।

আন্তর্জাতিক-এর আরও খবর